1. admin@nirjatitonewsbd.com : admin :
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪২ অপরাহ্ন

১২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ রড-সিমেন্টের দাম

  • সময় : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১
  • ৩৩১ বার পঠিত

দেশের বাজারে নির্মাণ কাজের অন্যতম প্রধান উপকরণ রডের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। দফায় দফায় বেড়ে এই পণ্যের দাম এখন ওয়ান-ইলেভেনের পর সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। রডের পাশাপাশি নির্মাণ কাজে প্রয়োজনীয় আরেক উপকরণ সিমেন্টের দামও বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে।

রাজধানীর খুচরা ব্যবসায়ীদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ওয়ান-ইলেভেনের (২০০৭ সালের জানুয়ারির পর) সময় দেশজুড়ে দেখা দেয়া অনিয়শ্চয়তার মধ্যে ভালো মানের (৬০ গ্রেডের ওপরে) এক টন রডের দাম ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত উঠে যায়। এটাই দেশের বাজারে এখন পর্যন্ত রডের সর্বোচ্চ দাম। সম্প্রতি রডের দাম বেড়ে ওই সময়কার কাছাকাছি পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। ভালো মানের এক টন রড কোম্পানিভেদে এখন খুচরা পর্যায়ে বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকায়।

রডের এই দাম বাড়ার কারণে হিসেবে খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে নির্মাণ কাজে এক প্রকার স্থবিরতা নেমে আসে। তবে কয়েক মাস ধরে রডের বিক্রি বেড়ে গেছে। চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রডের দামও বেড়েছে।

রড উৎপাদকরা বলছেন, দেশের বাজারে যে রড উৎপাদন হয় তার সিংহভাগ কাঁচামাল আনতে হয় বিদেশ থেকে। আন্তর্জাতিক বাজারে রডের কাঁচামালের দাম বেড়ে গেছে। এমনকি চাহিদার তুলনায় কাঁচামালের ঘাটতিও রয়েছে। মূলত কাঁচামালের দাম বাড়ার কারণে রডের দাম বেড়ে গেছে।

এদিকে রডের পাশাপাশি গত এক সপ্তাহে সিমেন্টের দামও বেড়েছে। কোম্পানি ভেদে বস্তা প্রতি সিমেন্টের দাম বেড়েছে ১০-৫০ টাকা পর্যন্ত। সামনে সিমেন্টের দাম আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। আর সিমেন্ট উৎপাদকরা বলছেন, কাঁচামাল ও জাহাজ ভাড়া বেড়ে যাওয়াই সিমেন্টের দাম বাড়ার অন্যতম কারণ। এর সঙ্গে চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়া দাম বাড়ার একটি কারণ।

সিমেন্টের দাম বাড়ার বিষয়ে এমআই সিমেন্টের কোম্পানি সচিব মো. মাজহারুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সিমেন্টের দাম বেড়েছে। তবে কী কারণে বাড়ছে এ বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।’

রডের দাম বাড়ার বিষয়ে বিএসআরএম স্টিলের কোম্পানি সচিব শেখর রঞ্জন কর গণমাধ্যমকে বলেন, ‘রডের দাম বাড়ার একমাত্র কারণ বিশ্ববাজারে কাঁচামালের দাম বেড়ে যাওয়া। করোনার কারণে রডের কাঁচামাল সরবরাহে এক ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। এখনো তার প্রভাব রয়ে গেছে। বাজারে কাঁচামালের যে চাহিদা রয়েছে, তার তুলনায় মালের ঘাটতি রয়েছে।’

আরএসআরএম স্টিলের কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ মইন উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘রডের দাম ডিসেম্বরে এক দফা বাড়ে। মাঝে কিছুটা কমলেও সপ্তাহখানেক ধরে আবার দাম বেড়েছে। একটি পণ্যের দাম বাড়ার পেছনে অনেকগুলো কারণ থাকে, এখন রডের দাম বাড়ার ক্ষেত্রেও অনেকগুলো কারণ আছে। তবে রডের দাম বাড়ার মূল কারণ স্টেপ (রডের কাঁচামাল)।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্টেপের দাম বেড়ে গেলে রডের দাম হু হু করে বেড়ে যায়। করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী দীর্ঘদিন স্টেপ সরবরাহ বন্ধ ছিল। বন্ধ থাকার কারণে স্টেপ সেভাবে পাওয়া যায়নি। এমনকি যারা স্টেপ নিজেরা বিক্রি করে, তারাও আন্তর্জাতিক বাজার থেকে স্টেপ কিনেছে। যে কারণে ২৫-২৬ হাজার টাকার স্টেপের দাম ৪০-৪৫ হাজার টাকা হয়ে যায়। স্টেপের এমন দাম বাড়ার কারণেই রডের দাম বেড়েছে।’

রডের দাম বাড়ার ক্ষেত্রে চাহিদা কোনো প্রভাব ফেলেছে কি-না জানতে চাইলে মইন উদ্দিন বলেন, ‘রডের দাম বাড়ার পেছনে চাহিদা বাড়ার একটি প্রভাব থাকতে পারে। তবে সেটা খুব বড় কারণ নয়। কারণ আগে বৃষ্টিতে কাজ হতো না, কিন্তু এখন সেই চিত্র বদলে গেছে। দেশের ভেতরে সারা বছরই নির্মাণ কাজ হয়, শুধু ভারী বর্ষার সময় হয়তো কাজ বন্ধ থাকে। এরপরও খরার মৌসুমে রডের চাহিদা কিছুটা বেশি থাকে। এখন যেমন রডের ভালো চাহিদা রয়েছে।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
© All rights reserved © 2021 Nirjatio News BD
Theme Customized By Theme Park BD